Joddha | Popular Online Bangla Breaking News Portal
সুপার ওয়াহাব, সাব জাকির
Tuesday, 31 Dec 2019 04:48 am
Joddha | Popular Online Bangla Breaking News Portal

Joddha | Popular Online Bangla Breaking News Portal

যোদ্ধা ডেস্কঃ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) এবারের আসরে বলহাতে সুনামির ঝড় তুললেন ঢাকা প্লাটুনের পাকিস্তানি পেসার ওয়াহাব রিয়াজ। ৩.৪ ওভারের অগ্নিঝড়া স্পেলে মাত্র ৮ রান দিয়ে নিয়েছেন ৫ উইকেট! প্রথম ওভারের গল্পটা ছিল এককথায় অবিশ্বাস্য। তিনটি উইকেট তুলে নিয়ে খরচ করেননি কোন রান। রান তাড়ায় প্রথম তিন ওভারে বিনা উইকেটে ৩৯ রান তোলা রাজশাহী রয়্যালসের ভিত্তিই গুড়িয়ে দেন এই পেসার।
প্রথম বলে লিটন দাস ক্যাচ আউটে ফিরে যান। এর দুই বল পর অলক কাপালিও পারেননি টিকতে। ওভারের শেষ বলে শোয়েব মালিকও ফিরে যান ক্যাচ আউটে। তিনটি ক্যাচই নিয়েছেন বদলি কিপার জাকির হোসেন। এরপর উইকেটের পেছনে দাঁড়িয়ে ধরেছেন আরও তিনটি ক্যাচ। মোট ছয়টি ক্যাচ এক ম্যাচে। বিপিএলের ইতিহাসে এক ম্যাচে সর্বোচ্চ ডিসমিসালের রেকর্ড এখন তারই দখলে।
২০১৬ সালের ১৭ নভেম্বর টুর্নামেন্টে প্রথম কিপার হিসেবে পাঁচ ডিসমিসালের কীর্তি গড়েছিলেন মোহাম্মদ শাহজাদ। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে জাকেরের চেয়ে বেশি ডিসমিসাল আছে কেবল উপুল ফার্নান্দোর। ২০০৫ সালে কলম্বোয় মুরস স্পোর্টস ক্লাবের বিপক্ষে লঙ্কান ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে সাতটি ক্যাচ নিয়েছিলেন তিনি।
শেলে বাংলা স্টেডিয়ামে গতকাল দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে মিরপুরে ৭৪ রানে জিতেছে ঢাকা। ১৭৪ রান তাড়ায় ১৬ ওভার ৪ বলে ১০০ রানে গুটিয়ে গেছে রাজশাহী। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ব্যাট করে ৪টি চার ও ৩ ছক্কায় ৫২ বলে অপরাজিত ৬৮ রান করেছেন তামিম। আসিফের ব্যাট থেকে এসেছে ৪টি করে চার ও ছক্কায় ২৮ বলে অপরাজিত ৫৫। ষষ্ঠ উইকেটে দুজনের অবিচ্ছিন্ন জুটির রান ৪৬ বলে ৯০। এই দুজনের এগিয়ে চলায় দায় আছে রাজশাহীর ফিল্ডারদেরও। ২৩ রানে ক্যাচ দিয়ে বেঁচে যান আসিফ, ৫০ রানে তামিম।
ফরহাদকে ছক্কা মেরে তামিমও মেটাতে শুরু করেন শেষের দাবি। এরপর আন্দ্রে রাসেলকেও দুটি ছক্কায় ওড়ান তামিম, মোহাম্মদ ইরফানকে আসিফ। শেষ ৪ ওভারে দুজনে তোলেন ৫৫ রান। এরপর রাজশাহীর ব্যাটিংয়ে পুরো প্রদর্শণীই ওয়াহাব রিয়োজের। দলকে শুধু জেতাননি এই পেসার, প্রতিপক্ষের মেরুদন্ড ভেঙে চুরমার করে দিয়েছেন তিনি। রাজশাহীর হয়ে আফিফ ৩১, লিটন ১০, বোপারা ১০ ওনাহিদুল ১৪ রান করেন। ্েছাড়া কোন ব্যাটসম্যান পৌঁছতে পারেননি দুই অঙ্কে। ম্যাচসেরা হয়েছেন ওয়াহাব রিয়াজ।