No icon

জাতীয় পর্যায়ে ওয়ার্ড মাষ্টার প্রতিযোগিতায় সেতাবগঞ্জ সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় ছাত্র সিহাব প্রথম

যোদ্ধা ডেস্কঃ
পরীক্ষার অকৃতকার্যতা ঝরে পড়া, শিশু শ্রম ও শিশু বিবাহের অন্যতম কারন। গ্রাম এলাকায় শিশুদের পরীক্ষায় অকৃতকার্য হবার প্রধান কারন হল ইংরেজীর দূর্বলতা তাই ‘‘শব্দ শিখি ইংরেজী শিখি” এই প্রতিপাদ্যকে এবং উপরোক্ত সকল সমস্যাকে সামনে রেখে গুড নেইবার্স বাংলাদেশ মোট ১১টি জেলার ১৪টি থানার অংশিদারি বিদ্যালয় গুলোকে নিয়ে ‘‘ওয়ার্ড মাষ্টার প্রতিযোগিতা” নামক এমন একটি প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে যা শিশুদের ইংরেজী ভাষার দক্ষতাকে  বাড়িয়ে দিবে। একই সাথে তাদের মধ্যে নতুন আত্মবিশ্বাস সৃষ্টি হবে।  এই প্রতিযোগিতায় গুড নেইবার্স বাংলাদেশ সিডিপি কর্তৃক আয়োজিত ২১টি সরকারি এবং বে-সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রথম পর্যায়ে ১ হাজার ৫শত শিক্ষার্থী অংশগ্রহন করে । তাদের মধ্যে থেকে ৩শত ১৫ জন শিক্ষার্থীকে দ্বিতীয় পর্যায়ের জন্য নির্বাচিত করা হয়। উপজেলা পর্যায় থেকে নির্বাচিত ১৫ জন শিক্ষার্থী রিজওনাল পর্যায়ে অর্থাৎ গুড নেইবার্স বাংলাদেশ উত্তরবঙ্গ এলকার মোট ৪টি সিডিপি থেকে ৬০ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহন করে। 
আজ ১ ডিসেম্বর রবিবার ফলাফল প্রকাশ করা হলে জাতীয় পর্যায়ে এই প্রতিযোগিতায় বোচাগঞ্জ সিডিপির হয়ে সেতাবগঞ্জ সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ৮ম শ্রেণীর ছাত্র শাহরিয়ার আহম্মেদ শিহাব পিতা-আলতাফুর রহমান প্রথম স্থান লাভ করা সহ একই বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী মোছাঃ মাইশা শাহরিয়া মিতু, পিতা-আব্দুস সালাম মিন্টু মোল্লা, মাতা- মোছা- জান্নাতুন নেছা মেধা তালিকায় স্থান লাভ করে। যা ছিল সর্বচ্চো স্থান। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিশ্বনাথ রায় তাদের এই সাফল্যে অনুভুতি প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন, বরাবরের মতই সেতাবগঞ্জ সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন বিষয়ে বিভাগ ও জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করে আসছে ।  তারই ধারাবাহিকতায় এবারও তারা জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করে স্কুলের সুনাম অক্ষুন্ন রেখেছে। এজন্য আমি আনন্দিত ও গর্বিত। পামাপাশি তাদের উজ্জ্বল ভবিষ্যত কামনা করছি।

 

Comment