No icon

সেতাবগঞ্জ সরকারি কলেজের অভ্যন্তরীন অডিট প্রতিবেদন ও অধ্যক্ষের জবাব নিরীক্ষা করার জন্য ৭ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন

যোদ্ধা ডেস্কঃ সেতাবগঞ্জ কলেজের অভ্যন্তরীন অডিট প্রতিবেদনে অধ্যক্ষ মনজুর আলমের বিরুদ্ধে অডিট আপত্তির প্রেক্ষিতে অধ্যক্ষ কর্তৃক অর্থ আত্নসাৎর অভিযোগ ও অধ্যক্ষের জবাব নিরীক্ষা করার জন্য ৭ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে
    সেতাবগঞ্জ সরকারী কলেজের সভাপতি ও বোচাগঞ্জ উপজেলা সাবেক নির্বাহী অফিসার মোঃ ফকরুল হাসান ও বর্তমান  উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছন্দ পাল- এর গঠিত ২টি অভ্যন্তরীন অডিটে সেতাবগঞ্জ কলেজ অধ্যক্ষ মোঃ মনজুর আলমের বিরুদ্ধে ২ কোটি ৯১ নব্বই লক্ষ ৭০ হাজার ১ শত ৭৮ টাকা আত্নসাতের অভিযোগ আনা হয়। এরই পেক্ষিতে কলেজ অধ্যক্ষকে উক্ত অডিট আপত্তির বিষয়ে কলেজ কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিনা ব্যর্থতায় গত ১ মার্চ তারিখের মধ্যে জবাব দাখিলে জন্য গত ২৩ ফেব্রুয়ারী কলেজ অধ্যক্ষকে চিঠি প্রদান করেন। এ বিষয়ে যথাসময়ে অধ্যক্ষের জবাব পাওয়ার পর কলেজ কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষের দাখিল কৃত জবাব ও পূর্বের দাখিল কৃত অভ্যন্তরীন অডিট কমিটির অডিট রির্পোট নিরীক্ষা করার জন্য বোচাগঞ্জ উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মোঃ মতিউর রহমান কে আহবায়ক ও উপজেলা হিসাব রক্ষণকর্মকর্তা মোঃ আশরাফুল আলম কে সদস্য সচিব করে ৭  সদস্য বিশিষ্ট একটি নিরীক্ষা কমিটি গঠণ করা হয়। এ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন যথাক্রমে উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মোঃ আসাদুজ্জামান নূর, উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা মোঃ সেলিম হোসেন, সেতাবগঞ্জ কলেজের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এ,কে, এম আনোয়ারুল করিম, একই কলেজের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মোঃ আশরাফুল আলম, ও জীববিজ্ঞান বিভাগের প্রদর্শক মোঃ আসাদুজ্জামান। এই কমিটির মধ্যে সহকারী অধ্যাপক এ,কে, এম আনোয়ারুল করিম কলেজ অধ্যক্ষ মনজুর আলমের মনোনীত সদস্য হিসেবে বিবেচিত হয়েছে। নিরীক্ষা কমিটির সদস্যবৃন্দকে আগামী ১৫ মার্চ তারিখের মধ্যে ২০১৪-২০১৫ থেকে ২০১৯-২০২০ অর্থ বছর পর্যন্ত দাখিল কৃত পূর্বের অভ্যন্তরীন অডিট প্রতিবেদন ও কলেজ অধ্যক্ষের দাখিল কৃত জবাব পর্যালোচনা পূর্বক নিরীক্ষা প্রতিবেদন সম্পন্ন করার জন্য গত ১ মার্চ তারিখে কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছন্দা পাল স্বাক্ষরিত চিঠির মাধ্যমে অনুরোধ করা হয়েছে।

Comment