No icon

পরীমণিকে হত্যাচেষ্টার মামলায় মাদক আইনে ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা

ঢাকাই সিনেমার অভিনেত্রী পরীমণিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা মামলায় গ্রেফতার আসামি ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদ (৬৫) ও তুহিন সিদ্দিকী অমিসহ (৩৩) পাঁচজনকে আসামি করে ডিএমপির বিমানবন্দর থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা করা হয়েছে।

মামলার বাকি তিন আসামিরা হলেন লিপি আক্তার (১৮), সুমি আক্তার (১৯) ও নাজমা আমিন স্নিগ্ধা (২৪)।

গতকাল সোমবার (১৪ জুন) দিবাগত রাত ১২টা ৫ মিনিটে মামলা করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে বিমানবন্দর থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মশিউর আলম।

মো. মশিউর আলম বলেন, তাদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা করা হয়েছে। ডিএমপির গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) গুলশান জোনাল টিমের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মানিক কুমার সিকদার বাদী হয়ে রাতে মামলাটি করেন।

এরআগে গত সোমবার (১৪ জুন) বিকেল ৩টার দিকে উত্তরা ১ নম্বর সেক্টরের ১২ নম্বর রোডের একটি বাসা থেকে নাসির উদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়। একই সময় মামলার ২ নম্বর আসামি অমি এবং আরও তিন নারীকেও গ্রেফতার করা হয়। তিন নারী হলেন লিপি, সুমি ও স্নিগ্ধা।

মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের গুলশান বিভাগ এই ৫ জনকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। যে বাসা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে সেটি মামলার আসামি অমির ভাড়া নেওয়া বলে জানা গেছে।

ডিবি-গুলশানের এক দায়িত্বশীল কর্মকর্তা বলেন, নাসির এ মামলার প্রধান আসামি। তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার সঙ্গে আরও চার জনকে আমরা হেফাজতে নিয়েছি। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এর আগে দুপুরে ডিবির যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশীদসহ ডিবির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উত্তরার ওই বাসায় প্রবেশ করেন। এসময় নাসির ওই বাসার বেডরুমে খাটের ওপর বসা ছিলেন। বাসাটি থেকে কয়েক বোতল বিদেশি মদ উদ্ধার করেছে ডিবি।

গত সোমবার (১৪ জুন) সকালে সাভার থানায় ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিনসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন পরীমণি। এর আগে সকালে রূপনগর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন তিনি।

জানা যায়, ৯ জুন (বুধবার) রাতে ঢাকা বোট ক্লাবে পরীমণিকে ধর্ষণ ও হত্যার চেষ্টা করা হয়। রোববার (১৩ জুন) রাতে প্রথমে তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এক পোস্টের মাধ্যমে বিষয়টি তুলে ধরেন এই অভিনেত্রী। পরে তার নিজ বাসায় সাংবাদিকদের সামনে ঘটনার বিস্তারিত তুলে ধরেন।

তিনি আরো অভিযোগ করে বলেন, ‘বুধবার রাতে উত্তরার বোট ক্লাবে ঘটনাটি ঘটে। নাসির উদ্দিন নামে একজন তাকে নেশাজাতীয় কিছু খাইয়ে এ ঘটনা ঘটাতে চেয়েছিলেন।

Comment