হাই লাইটস

শেখ কামাল বেঁচে থাকলে আমাকে হয়ত এত বড় দায়িত্ব নিতে হতো না : প্রধানমন্ত্রী

যোদ্ধা ডেস্কঃ বঙ্গবন্ধুর বড় ছেলে শেখ কামালের সাংগঠনিক দক্ষতা, দায়িত্বশীলতা ও বহুমুখী প্রতিভার কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হানিা বলেছেন, শেখ কামাল আজকে বেঁচে থাকলে আমাকে হয়তো এত বড় দায়িত্ব নিতে হতো না। তিনি আরো বলেছেন, শেখ কামালের সাংগঠনিক দক্ষতা ছিল প্রবল। কিন্তু কখনো কোন নেতা হবার চেষ্টা বা কোন পদে যাওয়ার চেষ্টা করেন নি। ব্যবসা-বাণিজ্য করে পয়সা বানানোর চিন্তা কখনো তার মাথায় ছিল না। বরং এ ব্যাপারে সে অত্যন্ত সতর্ক ছিল। গতকাল শনিবার সকালে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ (এনএসসি) পুরস্কার-২০২৩ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির দেওয়া বক্তব্যে তিনি এমন কথা বলেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বড় ছেলে শেখ কামালের ৭৪তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। নিজ বক্তব্যে এ সময় দেশের ক্রীড়া ও সংস্কৃতির উন্নয়নে বেসরকারি খাতকে এগিয়ে এসে পৃষ্ঠপোষকতা করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি বিশ্বাস করি যে দেশের ক্রীড়া ও সংস্কৃতির বিকাশের জন্য সরকারের পৃষ্ঠপোষকতার পাশাপাশি বেসরকারি পৃষ্ঠপোষকতাও প্রয়োজন। পৃষ্ঠপোষকতা ছাড়া এটি বিকশিত হতে পারে না।

বর্তমান সরকারের বেসরকারি খাতকে উন্মুক্ত করে দেয়ার প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, আমি বলবো আমাদের এখানে এখন ব্যাবসা-বাণিজ্য, ব্যাংক-বীমা অনেক কিছু আমরা করে দিয়েছি। বেসরকারি খাত অনেক বেশি শক্তিশালী হয়েছে। তারাই (খেলোযাড়রা) তাদের প্রতিষ্ঠানের নাম সব জায়গায় তুলে ধরতে পারবেন। সে ক্ষেত্রেও আপনাদের (ব্যবসায়ী/উদ্যোক্তা) এই সহযোগিতাটুকু কিন্তু দরকার।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মেয়েরা যদি সেই এভারেস্ট বিজয় করতে পারে অথবা এত স্বল্প সুযোগের মধ্যদিয়েও খেলোযাড়রা ক্রীড়াক্ষেত্রে যদি এত উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত রাখতে পারে তাহলে এই সুনাম বাড়ানোর জন্যই দরকার পৃষ্ঠপোষকতা। তিনি আশা রেখে বলেন, যথাযথ পৃষ্ঠপোষকতা পেলে আমাদের ক্রীড়াবিদরা দেশের জন্য আরো অনেক সুনাম বয়ে আনবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, যাদের বিভিন্ন ইন্ডাস্ট্রি রয়েছে-আপনারাও কিন্তু একজন ক্রীড়াবিদকে চাকরি দিতে পারেন বা আপনাদেরও একটা ক্রীড়া সংগঠন থাকতে পারে। বিভিন্ন প্রতিভা ছড়িয়ে আছে সারা বাংলাদেশে। সেসব প্রতিভাগুলোকে আপনারা কুড়িয়ে আনেন এবং তাদের একটু সুযোগ করে দেন। আপনারা দেখবেন বাংলাদেশের জন্য এরাই সব থেকে বেশি সুনাম বয়ে আনবে।

সমাজের বিত্তবানদের উদ্দেশ্যে শেখ হাসিনা বলেন, যারা বৃত্তশালী আছেন তাদেরকেও আমি বলবো ক্রীড়া সেবীদের কল্যাণে এই ফাউন্ডেশনে আপনারাও অনুদান দেবেন। কারণ, আমি জানি আপনাদের অনেক পুরনো খেলোয়াড় রয়েছেন যারা অসুস্থ হয়ে পড়ে এবং তাদের চিকিৎসার কোন সুযোগ থাকে না। অনেকে আর্থিক সংকটেও পড়ে। কারণ, খেলাধুলাতো বেশি বয়স পর্যন্ত করা যায় না। কিন্তু তাদের পরবর্তী জীবনটা কেমন হবে, সেটাও একটা বড় কথা। তিনি বলেন, আমি যতক্ষণ আছি দিয়ে যাচ্ছি। যাদের ঘর নাই, তাদের ফ্লাট তৈরি করে দেওয়া বা জমি দেওয়া, খেলাধুলার সরঞ্জাম প্রদান বা চিকিৎসার ব্যবস্থা করা বা চিকিৎসা করিয়ে বিদেশ থেকে আনা-সব করে যাচ্ছি।

শেখ হাসিনা বলেন, চিরদিনতো আর আমি থাকবো না, আর হয়তো এভাবে আর কেউ আন্তারিকতার সাথে করবেও না। কাজেই তাদের ভবিষ্যৎ যাতে ভাল থাকে এবং ভবিষ্যতে তারা ভাল কিছু করে চলতে পারে সেজন্যই আজকে আমাদের যারা বিত্তশালী আছেন তাদের আহবান করবো আপনারা একটু উদ্যোগ নেন বা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান তারাও একটু উদ্যোগ নেন। তিনি জানান, তিনি যখন প্রধানমন্ত্রী ছিলেন তখন এবং যখন ছিলেন না তখনও তিনি খেলোয়াড়দেরকে সহযোগিতা করে গেছেন। বিশেষ করে আবাহনীর সাথে সম্পৃক্ত অধিকাংশ খেলোযাড়কে তিনি ব্যক্তিগতভাবে চিনতেন এবং সহযোগিতা করেছেন এবং করে যাচ্ছেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, অনেক গরিব পরিবারের ছেলে-মেয়েরা বিভিন্ন ক্ষেত্রে দেশের জন্য স্বর্ণ জয় করে আনছে। বিশেষ করে প্রতিবন্ধিরা স্পেশাল অলিম্পিকে স্বর্ণ জয় করছে। তারা দেশের জন্য সম্মান বয়ে আনছে এ জন্য তারা যেন এসব প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারে সে জন্য তাঁর সহযোগিতা রয়েছে। এ সময় যেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্রীড়া ক্ষেত্রে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ১০ জন ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব এবং দু’টি সংস্থার মাঝে ‘শেখ কামাল জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পুরস্কার-২০২৩’ তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেলের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন যুব ও ক্রীড়া সচিব ড. মহিউদ্দিন আহমেদ। এর আগে গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে একটি বিশেষ স্মারক ডাকটিকিট এবং একটি উদ্ধোধনী খাম প্রকাশ করেন। ১০ টাকা মূল্যমানের ডাকটিকিট, ৪০ টাকার তিনটি স্ট্যাম্প, ১০ টাকার উদ্ধোধনী খাম এবং ৫ টাকার ডাটা কার্ড সম্বলিত একটি স্যুভেনির শিট উম্মুক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী।

স্টাফ রিপোর্টার, মাগুরা থেকে জানান, জেলায় জন্মদিন উপলক্ষে গতকাল সকালে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। স্থানীয় সেগুন বাগিচায় জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আলী আহম্মেদ আহাদের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন মাগুরা ১ আসনের অ্যাড. সাইফুজ্জামান শিখর এমপি। অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন মাগুরা ২ আসনের অ্যাড. বীরেন শিকদার এমপি।

কুড়িগ্রাম জেলা সংবাদদাতা জানান, কুড়িগ্রামে বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে দিবসটি পালিত হয়েছে। সকালে স্বাধীনতার বিজয় স্তম্ভে শেখ কামালের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জেলা আওয়ামী লীগ সহ বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল আরীফ এর নেতৃতে প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

সিরাজগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা জানান, সিরাজগঞ্জে দিনটি উপলক্ষে সকল সরকারি আদাসরকারি ও বেসকারি প্রতিষ্ঠানে জীবন ভিত্তিক ব্যানার ও ফেস্টুন প্রদর্শন করা হয়। জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের ডিসি প্রাঙ্গনে শহীদের প্রতিকৃতিত্বে¡ স্থানীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. হাবিবে মিল্লাত মুন্না, জেলা আওয়ামী লীগ, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, বীর মুক্তিযোদ্ধা সংসদসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কিৃতিক সংগঠন পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। বক্তব্য রাখেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার খলিলুর রহমান।

নওগাঁ জেলা সংবাদদাতা জানান, নওগাঁ সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে জেলা প্রশাসন প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মো. গোলাম মওলা।
ঠাকুরগাঁও জেলা সংবাদদাতা জানান, ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসনের আয়োজনে জেলা পরিষদ অডিটোরিয়াম চত্বরে অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার্পণ করেন সরকারি ও বেসরকারি দফতরের প্রতিনিধিবৃন্দসহ বীর মুক্তিযোদ্ধরা। পরিষদ অডিটোরিয়ামে আলোচনা সভা ও পুরুষ্কার বিতরণ করা হয়। এসময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. সলেমান আলী অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন

ঝালকাঠি জেলা সংবাদদাতা জানান, ঝালকাঠিতে সকালে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে পুস্পমাল্য অর্পণ করেন জেলা প্রশাসক ফারাহ্ গুল নিঝুম। পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আফরুজুল হক টুটুল, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খান সাইফুল্লাহ পনিরসহ বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি সংস্থার পক্ষ থেকে পুস্পার্ঘ অর্পণ করা হয়।

শেরপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে শেরপুরে গতকাল সকালে জেলা কালেক্টরেট অঙ্গনে অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে প্রথমে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ জাতীয় সংসদের হুইপ বীর মুক্তিযোদ্ধা আতিউর রহমান আতিক এমপি।

বাগেরহাট জেলা সংবাদদাতা জানান, জেলায় বিভিন্ন আয়োজনের মধ্যে দিয়ে পালন করা দিনটি। সকালে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাশে শেখ কামালের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জেলা প্রশাসন। পরিষদ অডিটরিয়ামে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, জেলা প্রশাসক মোহা. খালিদ হোসেন।

রাজবাড়ী জেলা সংবাদদাতা জানান, রাজবাড়ীতে দিনটিকে ঘিরে সকালে অফিসার্স ক্লাব মুক্ত মঞ্চে আলোচনা সভার আয়োজন করেন জেলা প্রশাসন। রাজবাড়ীর জেলা প্রশাসক আবু কায়সার খানের সভাপতিত্বে জেলা পুলিশ সুপার জিএম আবুল কালাম আজাদ, সিভিল সার্জন ডা. মো. ইব্রাহিম টিটন উপস্থিত ছিলেন।

আনোয়ারা (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, আনোয়ারায় নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে দিবসটি পালিত হয়েছে। গতকাল সকাল ১০টায় উপজেলা পরিষদের হল রুমে শেখ কামালের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন উপজেলা প্রশাসন। সভার সভাপতিত্ব করেন নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইশতিয়াক ইমন।

বিরল (দিনাজপুর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, জন্মদিন উপলক্ষ্যে বিরলে বর্ণাঢ্য র‌্যালী, কেককাটা ও সভা অনুষ্ঠিত হয়। সকালে বিরল কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বর থেকে উপজেলা যুবলীগের আয়োজনে র‌্যালী বের হয়ে পৌর শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। সভার সভাপতিত্ব করেন উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুল মালেক

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে ছিল স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠান এবং কুইজ প্রতিযোগিতা। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিষদ চেয়ারম্যান মেজর (অবঃ) মোহাম্মদ আলী সুমন।

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, গফরগাঁও প্রশাসনের আয়োজনে গতকাল সকালে পরিষদ হল রুমে সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. ইয়াসিন খন্দকারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আশরাফ উদ্দিন (বাদল)। দিনটি উপলক্ষে উপজেলা পরিষদ সবুজ চত্বরে বৃক্ষ রোপণ করা হয় ।

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, ঈশ্বরগঞ্জে জন্মদিন উপলক্ষে গতকাল বাদ জোহর উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে দোয়ার আয়োজন করা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম বুলবুল, সাধারণ সম্পাদক সাফির উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, কোটালীপাড়ায় মাদরাসার ছাত্রদের মাঝে কোরআন শরীফ বিতরণ করেছেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম। দলীয় নেতাকর্মীদেরকে সাথে নিয়ে উপজেলার বিভিন্ন মাদরাসায় কোরআন শরীফ বিতরণ করেন।

মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, মোরেলগঞ্জে নানা কর্মসূচি পালন করেছে উপজেলা প্রশাসন। দিবসটি উপলক্ষে গতকাল সকাল ৯টায় প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা পরিষদ, প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ। নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম তারেক সুলতানের সভাপতিত্বে পরিষদ সভাকক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বাগেরহাট-৪ আসনের অ্যাড. আমিরুল আলম মিলন এমপি।

শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, এ উপলক্ষে সকাল ১১টায় উপজেলা প্রশাসন ও শেখ রাসেল শিশু প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের আয়োজনে পরিষদ চত্বরে প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও শ্রদ্ধা নিবেদন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবুল হায়াতসহ সর্বস্তরের মানুষ।

শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, শ্রীনগরে জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে পুষ্পার্ঘ্য অপর্ণ, দোয়া, আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ করা হয়। সকালে এ উপলক্ষে প্রশাসনের আয়োজনে পরিষদ চত্বরে প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অপর্ণ করা হয়। উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) সাফাত আরা সাঈদের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মসিউর রহমান মামুন।

বিশ্ব নাথ (সিলেট) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, বিশ্বনাথে পরিষদ মাঠে প্রতিকৃতিতে উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা পরিষদ ও থানা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানানো হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নুসরাত জাহানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) আসমা জাহান সরকার।

ঈশ্বরদী (পাবনা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, ঈশ্বরদীতে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে ছিলো শ্রদ্ধা নিবেদন, স্মৃতিচারণ, আলোচনা সভা ও গাছের চারা বিতরণ। সকালে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা চত্বরে গাছের চারা বিতরণ শেষে নিজস্ব মিলনায়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) টি এম রাহসিন কবিরের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব নায়েব আলী বিশ্বাস।

মুরাদনগর (কুমিল্লা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, মুরাদনগরে জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল সকালে কেন্দ্রীয় স্মৃতিসৌধে উপজেলা প্রশাসন ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, মুরাদনগর শাখার পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন ও পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পরে কবি নজরুল মিলনায়তনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আলাউদ্দীন ভূঞা জনী সভাপতিত্ব করেন সভার।

এমন আরো সংবাদ

এই সংবাদটিও পরতে পারেন
Close
Back to top button